Financial Posts : 2014 10 G

1)

শেখ হাসিনার বিশ্ব অর্থনীতি ভাবনা ( জাতিসংঘ, ২০১২ ) =====>>

নিউইয়র্ক, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১২ (প্রথম নিউজ ডটকম) : জাতিসংঘ, ব্রেটন উডস ইনস্টিটিউশনস ও অন্যান্য বহুজাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠান সংস্কার চেয়েছেন বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের ৬৭তম সাধারণ অধিবেশনে দেয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী এ সংস্কারের আহ্বান জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি জাতিসংঘের অধিকাংশ সদস্য রাষ্ট্রের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে জাতিসংঘ, ব্রেটন উডস ইনস্টিটিউশনস ও অন্যান্য বহুজাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠান সংস্কারের বিষয়ে পুনরায় গুরুত্ব আরোপ করছি।’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘এসব প্রতিষ্ঠানের কাঠামো ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়া ৬০ বছরের পুরোনো ক্ষমতার সমীকরণের প্রতিফলন। যেখানে অধিকাংশ দেশের স্বার্থ উপেক্ষিত থাকে এবং কয়েকটি বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত দেশের স্বার্থ রক্ষা হয়।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন সহস্রাব্দে বেশকিছু স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র এবং বিশ্বায়ন একটি পরিবর্তিত বিশ্ব ব্যবস্থা গড়ার সুযোগ এনে দিয়েছে। আজ আমরা ন্যায়বিচার, সমতা, গণতন্ত্র, স্বাধীনতা, মানবাধিকার, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাবের কথা দৃঢ়তার সাথে বলতে পারছি।’

তিনি বলেন, ‘এ সবই আমাদের অগ্রাধিকার। অতীতের অপ্রীতিকর অভিজ্ঞতা ভুলে সবার এখন সেই লক্ষ্যে কাজ করা উচিত। নতুন বিশ্ব ব্যবস্থা অবশ্যই ন্যায়বিচার, পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ এবং সার্বভৌম সমতার ভিত্তিতে হতে হবে। যার মাধ্যমে শান্তিময় বিশ্ব গড়ে উঠবে।’ LINK

2) Major Frauds of the U.S. Monetary System By Jason Hommel LINK

3) http://www.youtube.com/watch?v=UWtqk9zFPNU

4)

Thirty years of research in the history of Islamic economic thought: Assessment and future directions ===>> LINK 
5) FED Chairman – – – – 
http://www.federalreserve.gov/aboutthefed/bios/board/bernanke.htm

6) “Paper money eventually returns to its intrinsic value – zero.” (Voltaire, 1694-1778)
—————————— http://historysquared.com/2012/06/26/fiat-currencies-trend-towards-their-intrinsic-value-often-rather-quickly/

7)  US Paper Money – – – 
আমেরিকায় ২ ডলার নোট -এর ব্যবহার এতটা-ই কম যে তার পরিসংখ্যান দেওয়ার প্রয়োজন মনে করে নাই —— সে দেশের কর্তৃপক্ষ । অথচ, বাংলাদেশে ২ টাকার নোট এত বেশী ব্যবহার হয় যে ছেঁড়া বা অতি মলীন হলে-ও তা আমাদের হাতে হাতে প্রতিদিন ঘুরে-ই চলেছে । ——————- এই বৈপরিত্য কেন এই দুই দেশে ???
C/O, http://www.federalreserve.gov/faqs/how-long-is-the-life-span-of-us-paper-money.htm

8)

মুদ্রাবাজারে ভারতীয় রুপির নাকাল দশা (2013) 

মুদ্রাবাজারে ভারতীয় রুপির দরপতনের রেকর্ড অব্যাহত রয়েছে। মার্কিন ডলারের বিপরীতে গতকাল বুধবারও রুপির দরপতনের আরেকটি নতুন রেকর্ড হয়েছে।
এদিন প্রতি ডলারের বিনিময় হার ৬৪ দশমিক ৫২ রুপিতে উঠেছে। এটি হচ্ছে ডলারের বিপরীতে রুপির সর্বকালের সর্বনিম্ন দর। দিন শেষে অবশ্য দরটি ৬৪ দশমিক ১১ রুপিতে নেমে আসে।
আগের দিন মঙ্গলবার এই হার ছিল ৬৪ দশমিক ১৩ রুপি। তারও আগের দিন সোমবার ডলারের বিপরীতে রুপি সর্বকালের সর্বনিম্ন দরে বিনিময় হওয়ার (৬৩ দশমিক ১৩ রুপি) রেকর্ড হয়।
এদিকে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই) গতকাল জানিয়েছে যে তারা দীর্ঘমেয়াদি সরকারি বন্ড কেনার মাধ্যমে ব্যাংকব্যবস্থায় আট হাজার কোটি রুপি (এক হাজার ৩০০ কোটি ডলারের সমান) সরবরাহ করবে।
রুপির দরপতন ঠেকাতে মুদ্রা সরবরাহ কমানোর কয়েক দিনের মধ্যেই এ পদক্ষেপ নিল আরবিআই। তবে ঋণ সরবরাহ বাড়াতে এমন পদক্ষেপ প্রত্যাশিতই ছিল।
কয়েক সপ্তাহ ধরেই ডলারের সঙ্গে কেনাবেচায় একের পর এক রুপির দরপতনের রেকর্ড হয়েই চলেছে। এই অবস্থায় ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই) গতকাল মুদ্রাবাজারে হস্তক্ষেপ করেছে। সে অনুযায়ী দুটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক ডলার বিক্রি করেছে।
বিশ্লেষক ও ব্যাংকাররা বলছেন, মাসের শেষ দিকে এসে আমদানিকারকদের কাছে ডলারের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় এবং বিদেশি বিনিয়োগকারীরা ব্যাপক হারে অর্থ প্রত্যাবাসন করার কারণে মার্কিন মুদ্রাটির দাম বাড়ছে, আর ভারতীয় রুপির দর পড়ে যাচ্ছে। এই প্রবণতা অব্যাহত থাকবে বলেও তাঁরা মনে করেন। কারও কারও মতে, রুপির আরও দরপতন অনিবার্য।
এদিকে আরবিআই ডলার বিক্রির ব্যাপারে সতর্কাবস্থার মধ্যে রয়েছে। কারণ, তাদের হাতে বর্তমানে ২৮ হাজার কোটি ডলারের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বা মজুত আছে; যা দেশটির মাত্র ছয় মাসের আমদানি ব্যয়ের সমান। মুদ্রাবাজারে স্থিতিশীলতার জন্য আরবিআই। সূত্র: বিবিসি ও বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড। LINK

9) Bank Loan  – – – –

ঋণের অর্থ পরিশোধিত হবে না জেনেও ঋণ প্রদান করা হচ্ছে এবং ঋণ প্রস্তাব অনুমোদনের প্রেক্ষিতে পর্ষদ কর্তৃক আমানতকারীদের স্বার্থ উপেক্ষিত হচ্ছে।’ আবার আরেক ঋণের ক্ষেত্রে বলা হয়েছে, ‘ব্যাংকের ঋণশৃঙ্খলা সম্পূর্ণরূপে ভেঙে পড়েছে মর্মে প্রতীয়মান হচ্ছে। এ ধরনের ঋণ পরিশোধ হওয়ার কোনো সম্ভাবনা আছে বলে মনে হয় না।’ (2013 Report)
=======>> http://www.bdtoday.net/newsdetail/detail/35/4294

10)  India :  ‘ওনিয়ন ইলেকশন’ 

পিঁয়াজের দাম ক্রমাগতভাবে বেড়ে যাবার কারনে ১৯৮১ সালে ভারতীয় জনতা পার্টি ক্ষমতা হারিয়েছিলো। সে সময় এটিকে ‘ওনিয়ন ইলেকশন’ বলা হয়েছিলো। (2013)  LINK

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s